টিকটক করতে গিয়ে মাথায় গুলি, মায়ের সামনেই কিশোরের মৃত্যু

টিকটকে ভিডিও বানাতে গিয়ে নিজের মাথায় গুলি করে দিলো এক কিশোর। এবং সাথে সাথেই মৃত্যু। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের বরেলির মুদিয়া ভিকামপুর গ্রামে। এই ঘটনায় একটি এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ।

ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন তারা। সেনা কর্মকর্তার ছেলে ক্লাস টুয়েলভের পড়ুয়া কেশবের টিকটক ভিডিও বানানোর নেশা ছিল। মাঝেমধ্যেই ভিডিও বানিয়ে সেগুলো নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করত সে।

গণমাধ্যম জানায়, সোমবার বিকেলে ১৮ বছর বয়সী কেশব কুমার স্কুল থেকে ফিরে মা সাবিত্রী দেবীর কাছ থেকে তার পিস্তল চায়। সাবিত্রী দেবী জানান, তার পিস্তলের লাইসেন্স রয়েছে। সাবিত্রী জানান, প্রথমে আমি পিস্তল দিতে চাইনি। কিন্তু কেশব অনেক করে বায়না করার পর শেষ পর্যন্ত আমার আলমারি থেকে পিস্তল বের করে দিই। তারপর আমি রান্নাঘরে কাজ করছিলাম।

হঠাৎ করেই গুলি চলার শব্দ শুনি। সঙ্গে সঙ্গে ঘরে ঢুকে দেখি মাটিতে পড়ে রয়েছে কেশব। মাথা থেকে রক্ত বেরিয়ে চারদিক ভেসে যাচ্ছে। সঙ্গে সঙ্গে ওকে বরেলির একটা বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে ডাক্তাররা ওকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ পুলিশ থানার সার্কেল অফিসার যোগেন্দ্র যাদব জানান, কেশবের পরিবার জানিয়েছে, দেহের ময়নাতদন্ত করার প্রয়োজন নেই।

পিস্তলটি সাবিত্রী দেবীর নামে রয়েছে। সেটি তার আলমারিতেই রাখা থাকত। কিন্তু তারপরেও এই ঘটনায় একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।