বেশি হাসলে শরীরে বেশি উপকার

করোনাকালে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নিয়ে যারা চিন্তায় আছেন, তাদের হাসিখুশি থাকা খুব জরুরি। হাসি শরীরে স্ট্রেস হরমোনের উৎপাদন কমিয়ে দেয় এবং রোগ প্রতিরোধক শ্বেত রক্তকণিকার উৎপাদন বৃদ্ধি করে। ফলাফল মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। সম্প্রতি নতুন এক গবেষণায় ইউনিভার্সিটি অব বাসেলের একদল গবেষক এ তথ্য জানিয়েছেন। চলতি মাসের শুরুর দিকে নতুন এই গবেষণার ফলাফল পোলস ওয়ান জার্নালে প্রকাশ করা হয়েছে।

গবেষণায় জানায়, হাসার কারণে ফুসফুস প্রসারিত হয়। এতে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। রক্তের মাধ্যমে ফুসফুসে বিশুদ্ধ অক্সিজেন প্রবেশ করে, যা পরবর্তী সময়ে শরীরে অক্সিজেনের পরিমাণ বৃদ্ধি করে। শরীরে অক্সিজেনের পরিমাণ বৃদ্ধি পেলে নানান রোগের প্রকোপ কমে যায়।

এছাড়া হাসি মানুষকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে। শরীকে চাঙ্গা রাখে। যারা প্রতিদিন অন্যদের তুলনায় বেশি হাসেন, তাদের চাপ সামলানোর দক্ষতা অন্যদের চেয়ে বেশি। মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের উত্তর নিয়ে বিশেষজ্ঞরা দেখেছেন, মানুষ সাধারণত দিনে গড়ে ১৮ বার হাসে।

এর আগেও একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, হাসলে মানসিক চাপ কমে। হাসির সময় আমাদের শরীরে এন্ডোরফিন হরমোনের ক্ষরণ হয়, যা স্ট্রেস হরমোন নামে পরিচিত কর্টিজল হরমোনের কার্যক্ষমতাকে কমিয়ে ফেলে। এতে মানসিক চাপ দূর হয় এবং হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে আসে।

গবেষকেরা বলছেন, যদি দুজন মানুষ একসঙ্গে প্রাণ খুলে হাসতে পারেন, তাহলে দুজনের মধ্যে মনোমালিন্য হওয়ার আশঙ্কা বেশ কম। হাসি দলীয় বন্ধন (টিমওয়ার্ক) মজবুত করে।