নরসিংদীর পলাশে গৃহবধূ ধ’র্ষণে’র ঘটনায় প্রা’ইভেটকার জব্দ

নরসিংদীর পলাশে স্বামীর বেতনের টাকা দেওয়ার কথা বলে ডেকে এনে অস্ত্রের মুখে স্বামীকে জিম্মি করে গৃহবধূকে ধ’র্ষ’ণ মামলায় এখনো অভিযুক্তরা গ্রেফতার হয়নি। তবে গতকাল মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর ঢাকা খিলখেত লেকসিটি এলাকা থেকে গৃহবধূকে ধর্ষণের সময় ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি মামলার আলামত হিসেবে জব্দ করেছে পুলিশ।

তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পলাশ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আজাদ হোসেন। তিনি জানান, তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে জানতে পারি ওই ঘটনায় অভিযুক্ত আসামী পাপ্পু খন্দকার ঢাকার খিলখেত লেকসিটি এলাকায় অবস্থান করছেন।

পরে পুলিশের একটি টিম ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পরিত্যক্ত অবস্থায় প্রাইভেটকারটি মামলার আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়। তবে অভিযুক্ত আসামী পাপ্পু খন্দকারকে পাওয়া যায় নি। আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ,পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার ভাগ্যেরপাড়া গ্রামের আব্দুল ছাত্তার খন্দকারের ছেলে ও ঘোড়াশাল পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলম খন্দকারের ছোট ভাই পাপ্পু খন্দকার তার এক সহযোগির সহায়তায় স্বামীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে প্রাইভেটকারের ভেতরে ফেলে এক গৃহবধূ’কে ধ’র্ষণে’র অভিযোগ ওঠেছে।

নি’র্যা’তিত ওই গৃহবধূর স্বামী পাপ্পু খন্দকারের প্রাইভেটকারটির চালক ছিল। এ ঘটনায় গত রোববার সকালে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নি’র্যাতন দমন আ’ইনে অ’ভি’যুক্ত পাপ্পু খন্দকারকে প্রধান আসামী ও ধ’র্ষ’ণ কাজে সহায়তা করার জন্য পাপ্পু খন্দকারের সহযোগি শাহাদাত হোসেনকে আসামী করে পলা’শ থানায় একটি মামলা দায়ের করে। এরপর থেকেই অভিযুক্ত পাপ্পু খন্দকার ও তার সহযোগি শাহাদাত হোসেন পলাতক রয়েছে।