যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর মেজর পদে বাংলাদেশি ডা. মনসুর আলী !!

ইউএস আর্মি ক্যাপ্টেন থেকে মেজর হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন বাংলাদেশি-আমেরিকান ডা. মনসুর আলী। প্রথম বাংলাদেশি-আমেরিকান হিসেবে সর্বপ্রথম তিনি এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন বলে জানা গেছে।

৩ জুন টেক্সাসের ফোর্ট হুড আর্মি বেজের ডার্নাল আর্মি মেডিকেল সেন্টারে এ উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে মনসুর আলী ক্যাপ্টেন থেকে ইউএস আর্মির মেডিকেল কর্পস’র মেজর হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন।

অনুষ্ঠানে শপথ বাক্য পাঠ করান কর্নেল এম ডি কিম ডিলিও। সাথে ছিলেন মেজর এন্ডারসন এম ডি, সার্জেন্ট টিটারলি প্রমুখ। মেজর ডা. মনসুর আলীর সিরিমনিতে পরিবার থেকে উপস্থিত ছিলেন তার পিতা কেরামত আলী, স্ত্রী ফাহমিদা আলী ও ছেলে ইব্রাহীম।

বাংলাদেশের হবিগঞ্জ জেলার নবিগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের উমরপুর গ্রামের বাসিন্দা মনসুর আলী বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিবাসী হয়ে ১৯৯৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন। পদোন্নতিতে প্রবাসীরা তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

মধ্যবিত্তদের জন্য কম দামে বাইক নিয়ে এলো বাজাজ পালসার !!

নতুন প্রজন্মের মন কাড়তে কম দামের বাইক নিয়ে এলো বাজাজ। মডেল – বাজাজ পালসার ১২৫ নিওন। ইতোমধ্যে সাধ্যের দামে পালসারের স্টাইলিস লুক নজর কেড়েছে গ্রাহকদের।

গ্ল্যামারের চেয়ে প্রায় পাঁচ সাত হাজার টাকা কম দামে পেয়ে যাবেন ১২৫ সিসির নতুন বাজাজ পালসার। নিউ জেনারেশন (এনএস) স্টাইলে পাওয়া যাচ্ছে এই বাইকটি।লাল ও রুপালি রঙ ও সিঙ্গেল পিস সিটে মিলবে এই মডেলে। ১২৫ সিসির এই বাইকে রয়েছে দুটো গ্যাস চার্জ রিয়ার শক, সামনে ডিস্ক ব্রেক সঙ্গে রিয়ার ড্রাম এবং মেকানিকাল সিবিএস।

বাজাজ জানিয়েছে, সাশ্রয়ী দামে মধ্যবিত্তের জন্য বাইক এটি। যাতে রয়েছে ইঞ্জিন ১২৫ সিসি ডিটিএসআই। থ্রিডি ভ্যারিয়েন্টের লোগো রয়েছে এই মডেলে। যা নতুন প্রজন্মের নজর কাড়বে।শার্প, স্পোর্টি লুকের বাজাজ পালসার ১২৫ নিওনে রয়েছে ৫-স্পিড গিয়ার বক্স। প্রাইমারি কিক করলেই স্টার্ট হয়ে যাবে বাইক। চালানোর সময় চালকের পক্ষে গিয়ার চেঞ্চ করাও খুব সহজ হবে।

মনে করা হচ্ছে, প্রায় ৪৫ কিলোমিটার মাইলেজ দিতে পারে এই বাইক। ভারতে এই মডেলের ড্রাম ব্রেক ভার্সনের দাম মাত্র ৬৪,০০০ টাকা। ডিসক ব্রেকের দাম ৬৬,৬১৮ টাকা।